কেক ডেকোরেশনঃ

কেক ডেকোরেশন হচ্ছে এক ধরনের আর্ট যার মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের ফ্রস্টিং, আইসিং ও এডিবল ডেকোরেশনের উপাদান ব্যবহার করে কেককে আরও সুন্দর রুপ দেয়া হয়। আজকাল কেকের উপস্থিতি ছাড়া কোন অনুষ্ঠান খুব কমই দেখা যায়। অনুষ্ঠানের ধরনের উপর নির্ভর করে কেক ডেকোরেশনেও আসে ভিন্নতা। এবারের পর্বে কেক ডেকোরেশনে ব্যবহৃত জনপ্রিয় কিছু আইসিং ও ফ্রস্টিং সম্পর্কে তুলে ধরা হলো

১) বাটারক্রিম ফ্রস্টিংঃ বাটার বা বাটার জাতীয় ফ্যাট ও চিনির মিশ্রণকে ক্রিমে পরিণত করে বাটার ক্রীম ফ্রস্টিং বানানো হয়। বাটার ক্রীম ফ্রস্টিংয়ের মান ও গুণ কেমন হবে তা নির্ভর করে এতে ব্যবহৃত বাটারের মানের উপর।

কেক ডেকোরেশনের জন্য কেকের উপরে কোটিং এবং কেকের ভিতরের ফিলিং উভয় ক্ষেত্রেই এই ফ্রস্টিং ব্যবহার করা যায়। এটি তুলনামূলক নরম হয়। এর স্বাদ ও ফ্লেক্সিবিটির কারণে এটি বেশি জনপ্রিয়।

২) মেরাং বাটারক্রিম ফ্রস্টিংঃ মেরাং বাটার ক্রিম তিন ধরনের হয়ে থাকে। সুইস মেরাং বাটার ক্রীম, ইটালিয়ান মেরাং বাটার ক্রীম ও ফ্রেঞ্চ মেরাং বাটার ক্রীম।সুইস মেরাং বাটার ক্রীম বানানোর জন্য ডিমের সাদা অংশ ও চিনির মিশ্রণকে ডাবল বয়লারে রেখে বিট করতে হয়। এরপর এটি কক্ষতাপমাত্রায় এলে এর সাথে নরম বাটার দিয়ে বিট করে ক্রীম বানানো হয়।ইটালিয়ান মেরাং বাটার ক্রীমের ক্ষেত্রে ডিমের সাদা অংশ বিট করে মেরাং বানিয়ে এতে গরম সুগার সিরাপ দিয়ে বিট করা হয়। এরপর এতে স্বাভাবিক তাপমাত্রায় নরম বাটার যোগ করে বিট করে ক্রীম বানানো হয়।ফ্রেঞ্চ বাটার ক্রীমের বিটিং পদ্ধতি ইরটালিয়ান বাটার ক্রীমের মতই। তবে এতে ডিমের সাদা অংশ ব্যবহার না করে ডিমের কুসুম ব্যবহার করা হয়।

৩) হুইপড ক্রিম ফ্রস্টিংঃহুইপড ক্রিম হচ্ছে একধরনের ক্রীম যা মিক্সার বা হুইস্ক ব্যবহার করে বিট করে হালকা ও ফ্লপি বানানো হয়। এতে চিনি ও ফ্লেভার যোগ করে এর স্বাদে পরিবর্তন আনা হয়। এটি অন্যান্য ফ্রস্টিংয়ের তুলনায় বেশি হালকা হয়ে থাকে।

৪) গানাচঃ হেভি ক্রিমকে গরম করে এতে চকোলেট চিপস বা ছোট টুকরো করে কাটা চকোলেট মিক্সড করে গলিয়ে গানাচ তৈরি করা হয়। গানাচকে ফ্রস্টিংয়ে রূপ দিতে কক্ষতাপমাত্রার গানাচকে হাই স্পিডে বিট করতে হয়। এতে আস্তে আস্তে এটি হালকা ও ফ্লপি হয়ে ফ্রস্টিংয়ে রুপ নেয়।

৫) রয়েল আইসিংঃডিমের সাদা অংশ, আইসিং সুগার ও লেবুর রস একসাথে বিট করে রয়েল আইসিং তৈরি করা হয়। কাচা ডিমের সাদা অংশ ব্যবহারে সালমোনেলা ভাইরাসের সংক্রমণের ঝুঁকি থাকে তাই অনেকে এতে ডিমের সাদা অংশের পরিবর্তে মেরাং পাউডার ব্যবহার করে থাকেন।এটি শুকানোর পর শক্ত হয়ে যায়। এটি সাদা রঙের যা বিভিন্ন ফুড কালার ব্যবহার করে বিভিন্ন রঙের করা যায়।

৬) ক্রীম চিজ ফ্রস্টিংঃরেড ভেলভেট কেক, কাপ কেক, ডোনাটের ফিলিং ছাড়াও আরও কিছু ক্ষেত্রে এই ফ্রস্টিং ব্যবহার করা হয়ে থাকে। বাটার ক্রীমের সাথে ক্রীম চিজ মিক্সড করে ক্রীম চিজ ফ্রস্টিং বানানো হয়।

৭)ফন্ডেন্টঃবিভিন্ন থিম কেক বানানোর ক্ষেত্রে ফন্ডেন্ট বেশি ব্যবহার করা হয়। দক্ষ হাতে ফন্ডেন্টকে যে কোন আকৃতি দিয়ে যেমন কেক ডেকোরেশনের কাজে ব্যবহার করা হয় তেমনি বিভিন্ন কার্ভিং ও ডেকোরেটিং টুলস ব্যবহার করেও একে বিভিন্ন আকৃতি দেয়া যায়। ফন্ডেন্টও বিভিন্ন ধরনের হয়ে থাকে। যেমনঃ রোলড ফন্ডেন্ট, পোরএবল ফন্ডেন্ট, স্কাল্পটিং ফন্ডেন্ট, গামপেস্ট ইত্যাদি।